কক্সবাজার, বুধবার, ২৯ জুন ২০২২

শিরোনাম

ঈদগাঁও‘র শাহ্ ফকির বাজার ব্যবসায়ীকে জমিদারের হুমকি-“আমার ভাই না জিতলে দোকান কেড়ে নিয়ে পথে বসাবো” !


প্রকাশের সময় :১৬ মে, ২০২২ ১:৫৪ : পূর্বাহ্ণ

বার্তা পরিবেশক:

কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামাবাদ শাহ ফকির বাজার বাজার ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ নির্বাচনকে সামনে রেখে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ করেছেন ভোটাররা। নির্বাচনী প্রচারণা, ব্যানার পোস্টার লাগানোকে কেন্দ্র করে এক পক্ষ অপর পক্ষকে ঘায়েল করতে মরিয়া হয়ে উঠায় এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে আগামী ২০ মে বহুল কাঙ্ক্ষিত শাহ ফকির বাজার ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির নির্বাচন। এ নির্বাচনে ৪ টি পদে নির্বাচন হবে।
এ নির্বাচনে সভাপতি ৩ জন, সহ সভাপতি ৩ জন, সাধারণ সম্পাদক ২ জন, সহ সাধারণ সম্পাদক ২ জন প্রার্থী মাঠ প্রচার প্রচারণা চালিয়ে আসছে। টিক এমন সময়ে নাঈমুল ইসলাম নামের সহ সভাপতি পদপ্রার্থীর এক ভাই তৈয়ব জালাল নামের এক ব্যক্তি সাধারণ ভোটারদের সরাসরি হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে বলে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নির্বাচন পরিচালনা পরিষদের অন্তবর্তী ব্যবস্থাপনা কমিটির বরাবর।

লিখিত অভিযোগে মোঃ মামুনুর রশীদ নামের এক ব্যবসায়ী দাবি করেন, গত ১২ মে রাতে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অন্য একজন সহ সভাপতির ব্যানার টাঙায়। বিষয়টি দেখে অপর এক সহ সভাপতি পদপ্রার্থী নাঈমুল ইসলামের ভাই তৈয়ব জালাল এসে সেটি সরিয়ে পেলতে বলেন, নয় তো তার মার্কেট থেকে উচ্ছেদ করে পথে বসাবে বলেও হুংকার দেন। এমন অবস্থায় মামুনুর রশীদসহ ঐ মার্কেটে ব্যবসা করা ৬/৭ জন সাধারণ ভোটারদের নানান ভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তার ভাইয়ের পক্ষে সমর্থন দেওয়ার পায়তারা চালায়। ঐ সময় তৈয়ব জালাল তার ভাইকে ভোট না দিলে ব্যবসা করতে দিবেও না বলে হুংকার দেন।

এমন অদ্ভুত পরিস্থিতিতে তারা নির্বাচন পরিচালনা পরিষদকে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা বিষয়টি ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে বলে স্বীকার করেন। এবং মালিক সমিতিকে বিষয়টি দেখভাল করার দায়িত্ব দিলে তারা সমাধান করে দেন বলে জানান।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তৈয়ব জালাল বলেন, তার পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে চলা আসা ষড়যন্ত্রের অংশবিশেষের এটিও একটি। এ জাতীয় কোনো ঘটনাও হয়নি৷

মামুনুর রশীদ জানান, তারা ন্যায় বিচার পাননি, নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করে ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তার দাবি করেন।

ট্যাগ :