কক্সবাজার, শুক্রবার, ২০ মে ২০২২

শিরোনাম

ভিটা দখল করতে প্রবাসীর স্ত্রীকে ছোট ভাইয়ের মারধর, আহত-৩


প্রকাশের সময় :২৩ জানুয়ারি, ২০২২ ১১:৩৯ : অপরাহ্ণ
মহেশখালী প্রতিনিধি
মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ভিটা দখল করতে প্রবাসীর স্ত্রীকে দেবর মারধর করছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে। এতে ৩ জন আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। রবিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় মাতারবাড়ীর মাইজপাড়া এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হামলাকারী গফুর তার বড় ভাই প্রবাসী ছাবের আহমদের ভিটা দখল করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন। স্থানীয় একজন সাবেক মেম্বারের কাছে বিচার থাকার পরও কাগজ দেখাতে না পেরে গফুর নতুন আমিন ( সার্ভেয়ার) এনে জায়গা মাপার চেষ্টা করে। পরে সার্ভেয়ার না আসলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে তার ভাবীকে মারধর করেন। এতে প্রবাসীর স্ত্রীসহ সন্তানরা আহত হয়ে পড়েন।
সাবেক মেম্বার বলেন, বিচার সমাধান করার জন্য দু’পক্ষের কাগজপত্রের প্রয়োজন হয়। গফুর কাগজ দেখাতে না পারায় সময় নেই। কিন্তু শুনছি, গফুর প্রবাসীর পরিবারের উপর হামলা করছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।
মারধরের শিকার হওয়া কামরুন নাহার আপন কণ্ঠকে জানান, আমি একজন মহিলা। আমার স্বামী সৌদি আরবে থাকেন। আমাদের ভিটা মাপার জন্য স্থানীয় একজন সাবেক মেম্বারের কাছে বিচার আছে। তিনি ভিটে ভাগাভাগি করে দেওয়ার কথা বলায় আমি বিচার মেনে নেয়। কিন্তু গফুর সময় নেওয়ার পরও হঠাৎ করে নতুন আমিন (সার্ভেয়ার) নিয়ে আসতে চাই। আমিন না আসায় আমাকে গফুর গালিগালাজ করার মাঝে হঠাৎ করে থাপ্পড় মেরে দেয়। থাপ্পড় খেয়ে মাটিতে পড়ে গেলে, আমাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করেন। লাথি, কিল-ঘুষি মারতে থাকেন। পরে আমার সন্তানরা এগিয়ে আসলে ওদের ও মারধর করেন গফুর।
তিনি আরও বলেন, বাড়ির মূল্যবান জিনিসপত্র ও ভাংচুর করা হয়েছে। আমার সন্তানরা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। এখন আমাকে আবারও হুমকি দিচ্ছেন। প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। আমি সন্তানদের নিয়ে নিরাপদে থাকতে চাই।
এ বিষয়ে জানতে হামলাকারী গফুরের সাথে যোগাযোগের করার চেষ্টা করলে, ফোন বন্ধ থাকায় ওনার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
প্রবাসী ছাবের আহমেদ বলেন, আমি প্রবাসে থাকি। আমার স্ত্রী ও সন্তানের উপর হামলা আমাকে ভীষণ কষ্ট দিচ্ছে। আমি প্রশাসনের এর সঠিক বিচার চাই।
এবিষয়ে মাতারবাড়ী পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত এএসআই তোফায়েল  আহমেদ বলেন, ঘটনার পরেই আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। ঘটনা সত্য। অভিযোগ পেয়েছি, কিন্তু থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘটনাটি ভাইরাল হয়ে পড়লে, স্থানীয় সচেতন মহল অপরাধীর শাস্তি দাবি করছেন।

ট্যাগ :